ঢাকা, সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভোটারকে পেটানোয় ইউপি সদস্য কারাগারে

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে ভোটকেন্দ্রে ভোটারকে পেটানোর মামলায় হাসান মাহমুদ আপেল নামে এক ইউপি সদস্যকে (মেম্বার) কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। সোমবার (৮ আগস্ট) দুপুরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক তারেক আজিজ এ নির্দেশ দেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী কামরুল হাসান রনি বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, হাসানসহ ১০ আসামি আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। আদালত হাসানের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। অন্যদেরকে জামিন দিয়েছেন আদালত।

হাসান মাহমুদ আপেল উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ও হাজিরহাট ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক। মামলার বাদী সজিব একই ওয়ার্ডের বাসিন্দা।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০২১ সালের ২১ জুন হাজিরহাট ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে হাসান মাহমুদ আপেল সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ভোটকেন্দ্রটিও তার বাড়ির সামনে ছিল। ভোট চলাকালে একপর্যায়ে আপেল তার লোকজন নিয়ে ভোটারদেরকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে কেন্দ্র দখল করে নেন। পরে নিজের প্রতীকে ভোট কেটে নেন তারা। এ সময় ভোট দিতে আসা সজিব হোসেনকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। সজিব সদস্য প্রার্থী কবির হোসেনের লোক ছিলেন। এ ঘটনায় পরদিন সজিব বাদী হয়ে আপেলকে প্রধান করে ১৮ জনের বিরুদ্ধে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন আদালত। পরে কমলনগর থানা পুলিশ তদন্ত শেষে ১০ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে।

এদিকে সোমবার আদালতে মামলার শুনানি ছিল। এ সময় আসামিরা আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আপেলের আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।