ঢাকা, সোমবার, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নিউইয়র্কে দুর্বৃত্তের হামলায় বাংলাদেশি আহত

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে দুর্বৃত্তের হামলার শিকার হয়েছেন এক বাংলাদেশি। শুক্রবার (১ জানুয়ারি) সকালে নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে আবদুর রহমানকে মারধরের পর তার সর্বস্ব ছিনতাই করে পালিয়ে যান দুর্বৃত্তরা। ঘটনার চারদিন পরও পুলিশ দুর্বৃত্তকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

জানা গেছে, ঐদিন ব্রুকলিনে ৫২৪ পাইন স্ট্রিটে নিজের গাড়ি পার্ক করে বাসায় ফেরার সময় এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবক এসে অকারণে তার সঙ্গে কথা বলে বিতর্কে জড়ায়।  পার্ক করা গাড়ি অন্যত্র সরিয়ে নিতে তাগিদ দেন।  একপর্যায়ে কথা কাটাকাটি শুরু হয়।  গাড়িটি তার বাসার সামনে পার্ক করা ছিলা না।  সেটা ছিল রাস্তার ধারে একটা নিয়মিত পার্কিং স্থান।  কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্তের কথা অমান্য করায় তাকে বেধড়ক পিটাতে শুরু করে।  এতে ভেঙে যায় তার ডান চোখের হাড়।  পরে অচেতন হয়ে রহমান মাটিতে লুটিয়ে পড়লে দুর্বৃত্তরা তার ওয়ালেট এবং ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়।  পথচারীরা এ ঘটনা পুলিশে ফোন দিলে পুলিশ এসে তাকে স্থানীয় জ্যামাইকা হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ বিষয়ে ৭৫ প্রিসিংকটে একটি মামলা হয়েছে।  ডকেট নম্বর-২০২১০৭৫৩১।  গোয়েন্দা পুলিশ বেন মানেন মামলাটি তদন্ত করছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে, গত ৫ ডিসেম্বর ভোরে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্তের হামলার শিকার হন বাংলাদেশি মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ।  প্রায় ৯ দিন চিকিৎসা শেষে তিনি নিজ বাড়িতে ফিরে হামালার ঘটনা প্রতিবেশিসহ আত্মীয়দের কাছে বর্ণনা করেন।ঐদিন ঘটনাস্থল থেকে আহত অবস্থায় পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

তিনি জানান, ওইদিন ভোরে জ্যাকসন হাইটসে ৩২ অ্যাভিনিউয়ের ৭০ ষ্ট্রিটে গাড়ি পার্কিং করছিলেন। এ সময় অপর একটি গাড়ি তার গাড়ির পেছন থেকে ধাক্কা দেয়।  এতে তিনি গাড়ি থেকে নেমে গাড়ির ক্ষতি হয়েছে কিনা দেখছিলেন।  এমন সময় ধাক্কা দেওয়া গাড়ি থেকে কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্ত বের হয়ে গালি দিয়ে তার মুখে ধারালো কিছু একটা ছুঁড়ে মারে। এলোপাতাড়ি মারধরের ফলে তিনি মারাত্মক জখম হন হলে। এতে তার বুকের পাঁজরের ৫টি হাঁড় ভেঙে যায়।  ঘটনাস্থলের পাশের বাসার লোকজনের সহযোগিতায় পুলিশ এসে তাকে রক্তাত্ব অবস্থায় উদ্ধার করে এল্মহার্ষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করেন।