ঢাকা, রবিবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শামীম ওসমানকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর আশ্বাস, না.গঞ্জে হবে হার্ট ইনস্টিটিউট

নারায়ণগঞ্জ: দীর্ঘ সময় ধরে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জের কালিবাজার এলাকায় অবস্থিত জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভবনটিতে একটি হার্ট ইনস্টিটিউট স্থাপনের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। অবশেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ভবনটি আইন মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে হস্তান্তর করতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন।

রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতাল পরিদর্শনকালে শামীম ওসমান স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে বলেন, নারায়ণগঞ্জে হার্টের চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা নেই। এ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভবনটি তিন বছর ধরে অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে। যেটা করতে ইতোমধ্যে ৪০ থেকে ৫০ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে। আইনমন্ত্রী ইতোমধ্যে জানিয়েছেন এখানে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভবন হবে না অন্য জায়গায় ট্রান্সফার করা হবে এবং যে কোনো মন্ত্রণালায়ে যোগাযোগ করে ভবনটি তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। আমি আপনার কাছে ভিক্ষা চাইছি আমাদের এ আশ্বাসটুকু আপনি দিয়ে যাবেন।

পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, আমাদের স্থানীয় এমপি শামীম ওসমান একটি বিল্ডিংয়ের কথা বলেছেন। আইন মন্ত্রণালয়ের অধীনে একটি ভবন আছে। সেই ভবনটাতে হার্ট ইনস্টিটিউট করার জন্য উনি অনুরোধ করেছেন। আমরা এ বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। এ ভবনটা যেহেতু সরকারি অর্থায়নে করা এবং পড়ে আছে তিন বছর ধরে। এর ফলে অর্থের অপচয় হচ্ছে এবং মানুষের কোনো কাজে আসছে না। আমরা আইন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলাপ করে ভবনটি নিতে চেষ্টা করবো। ভবনটি নিতে পারলে আমরা অবশ্যই এখানে একটি হার্টের হাসপাতাল করবো।

তিনি বলেন, ঢাকার পর নারায়ণগঞ্জই দ্বিতীয় বড় শহর। এখানে ব্যবসা বাণিজ্যসহ বিভিন্ন কাজের কারণে বহু মানুষ থাকেন। তাই এখানকার চিকিৎসা ব্যবস্থাটাও ভালো হওয়া দরকার। আমরা খানপুরে করোনা হাসপাতালটি ঘুরে দেখলাম এখানে করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছে। প্রতিদিন প্রায় দেড় হাজার মানুষকে টিকা দেওয়া হচ্ছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আপনারা জানেন করোনা যে দুইটি জায়গা থেকে সবচেয়ে বেশি ছড়িয়েছিল তার একটি নারায়ণগঞ্জ আরেকটি ঢাকার গাজীপুর। তবে আপনারা জেনে আনন্দিত হবেন যে জায়গাটা করোনার হটস্পট ছিল আজ তা প্রায় করোনামুক্ত। এখানকার নেতারা, ডাক্তার-নার্স, সাংবাদিক ও প্রশাসনিক কর্মকর্তারা সবাই মিলে কাজ করছেন বিধায় আজ এ এলাকা প্রায় করোনামুক্ত হয়ে আসছে।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ দেশের অর্থনীতিতে বড় ভূমিকা পালন করে। এ নারায়ণগঞ্জ হাজারো মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছে। এখানে যে হাসপাতালগুলো আছে সেগুলোর মান উন্নয়নেও আমরা কাজ করে যাবো।

পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভবনটি দেখতে যান। এ সময় শামীম ওসমান তার সঙ্গে ছিলেন।