ঢাকা, রবিবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হরিণ হত্যা মামলায় ভুল তথ্য দেয়ায় ক্ষমা চাইলেন সালমান

কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় ভুল তথ্য দিয়েছিলেন সালমান খান। হলফনামার গাফিলতি ধরা পড়তেই আদালতের কাছে ক্ষমা চাইলেন বলিউড অভিনেতা।

২০০৩ সালে জোধপুরের এক আদালতে সালমান একটি হলফনামা জমা দিয়েছিলেন। সম্প্রতি তাতে ভুল তথ্য ধরা পড়েছে। মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে অভিনেতা সেই শুনানিতে উপস্থিত হন। তার আইনজীবী হস্তিমাল সারস্বত আদালতকে জানিয়েছেন, ওই হলফনামাটি ভুল করে জমা হয়েছিল। অনিচ্ছাকৃত এই ভুলের জন্য অভিনেতাকে ক্ষমা করে দেওয়া হোক।

হলফনামায় জানানো হয়েছিল, সালমানের লাইসেন্স হারিয়ে গেছে। তিনি এ নিয়ে বান্দ্রা পুলিশের কাছে একটি এফআইআর করেছিলেন। কিন্তু বাস্তবে তা নবায়ন করার জন্য পাঠানো হয়েছিল। সারস্বতের দাবি, ২০০৩ সালে এই হলফনামা জমা করার সময়ে অভিনেতা অত্যন্ত ব্যস্ত ছিলেন। তাই এই ভুলটি হয়েছিল।

তবে সরকারি আইনজীবী ভবানী সিংহ ভাটি দাবি করেছেন, তদন্তকে ভুল পথে চালিত করার অপরাধে সালমানের বিরুদ্ধে নতুন মামলা হওয়া উচিত।

১৯৯৮ সালে জোধপুরের এক গ্রামে দু’টি কৃষ্ণসার হরিণ ‘শিকার’ করার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন সালমান। অস্ত্র আইনে তাকে তার লাইসেন্স জমা করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। তার পরেই তিনি ওই হলফনামাটি জমা দেন।