ঢাকা, শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এক ডজন ক্রিকেটারকে বিদেশে খেলার অনুমতি দিল পাকিস্তান

ডজনখানেক ক্রিকেটারকে বিশ্বের বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলার ছাড়পত্র (এনওসি) দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। 

এর মধ্যে ২৯ আগস্ট থেকে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত ক্যারিবীয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) খেলার অনুমতি পেয়েছেন ব্যাটসম্যান ফখর জামান।ডজনখানেক ক্রিকেটারকে বিশ্বের বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলার ছাড়পত্র (এনওসি) দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। 

ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে খেলার জন্য ৪-২০ জুলাই পর্যন্ত ছাড়পত্র পেয়েছেন অভিজ্ঞ পেসার মোহাম্মদ আমির। 

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে শুরু হওয়া নতুন টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট মেজর লিগ ক্রিকেটেও (এমএলসি) অংশ নেবেন পাকিস্তানের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার। স্পিনার আবরার আহমেদ, পেসার হারিস রউফ এবং জামান খানকে ৪-২৮ জুলাই পর্যন্ত এই টুর্নামেন্টের জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

গত ১ জুলাই শুরু হয়েছে লংকান প্রিমিয়ার লিগের (এলপিএল) পঞ্চম আসর। এবারের আসরে খেলার জন্য পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের মধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন মোহাম্মদ হারিস, মোহাম্মদ হাসনাইন, আগা সালমান এবং শাদাব খান। ২১ জুলাই পর্যন্ত ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে তাদের।

৩ থেকে ১৩ জুলাই পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ অব লিজেন্ডস। এই টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার অনুমতি পেয়েছেন শারজিল খান এবং শোয়েব মাকসুদ।

ইংল্যান্ডের ১০০ বলের টুর্নামেন্ট দ্য হান্ড্রেডে পাকিস্তানের একমাত্র প্রতিনিধি উসামা মীর। তাকে এই টুর্নামেন্টের জন্য ২৩ জুলাই থেকে ২০ আগস্ট পর্যন্ত ছাড়পত্র দিয়েছে পিসিবি।

সিপিএলে গায়ানা ওয়ারিয়র্সের জার্সিতে খেলবেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান আজম খান এবং সাইম আইয়ুব, তাই এই দুজনকে অন্য কোনো টুর্নামেন্টের জন্য অনাপত্তিপত্র দেওয়া হয়নি।

পাকিস্তান বছরে ক্রিকেটারদের দুটির বেশি বিদেশি লিগে না খেলার নিয়ম জারি করেছে। তাই এলপিএল থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন আজম খান।

উল্লেখ্য, সদ্য সমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের কাছে হেরে গ্রুপপর্ব থেকে বাদ পড়ার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। সে সমালোচনা ঝেড়ে আবার মাঠের ক্রিকেটে ফিরছেন আমির-ফখর জামানরা।