ঢাকা, শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বর্ষা মৌসুমের আগাম প্রস্তুতি হিসেবে কৃষকদের পাশে দাঁড়ালো আইফার্মার

ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’-এ ভোলার ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়েছে দেশের শীর্ষস্থানীয় কৃষি-প্রযুক্তি প্ল্যাটফর্ম আইফার্মার। বন্যা বা অতিবৃষ্টির মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগে স্থানীয়দের আগাম প্রস্তুত করতে সম্প্রতি ১৫০ জন কৃষকের মাঝে ছাতা, রেইনকোট ও প্রাথমিক চিকিৎসার উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে।

প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত জেলার তালিকায় সবসময়ই বেশ ওপরের দিকে থাকে উপকূলীয় জেলা ভোলা। আর দুর্যোগের কারণে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েন জেলার কৃষক, জেলে, শ্রমিক সহ খেটে-খাওয়া জনগোষ্ঠী। ফলে, আসন্ন বর্ষা মৌসুমের আগাম প্রস্তুতি হিসেবে আইফার্মারের পক্ষ থেকে ছাতা, রেইনকোট ও প্রাথমিক চিকিৎসার উপকরণ পেয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’-এ ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা বেশ উপকৃত হয়েছেন। একইসাথে, ঘূর্ণিঝড়ের সময়ে কৃষকদের জন্য আবহাওয়া সতর্কবার্তা ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়ে পাশে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। এতে করে উপকূলীয় অঞ্চলের ক্ষতির পরিমাণ কিছুটা হলেও রোধ করা সম্ভব হয়েছে।

এ বিষয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে উপকারভোগী গবাদিপশু খামারি হাসিনা বেগম বলেন, “সামনেই ঝড়বৃষ্টির দিন শুরু হচ্ছে। বৃষ্টিতে মাঠে কাজ করতে খুব কষ্ট হয়ে যায়। আইফার্মারের কাছ থেকে ছাতা পেয়ে খুব ভালো লাগছে। এই মৌসুমে কাজ করতে আমাদের কিছু সুবিধা হবে। অবশ্য রিমাল আসার আগে থেকেই তারা আমাদের পাশে আছেন। ওই সময় আবহাওয়া অ্যালার্ট পেয়ে সাবধান থাকার সুযোগ পেয়েছি। সময়মতো সতর্ক থেকে ফসল ও জানমালের ক্ষতি থেকে রক্ষা পেয়েছি।”

এ বিষয়ে আইফার্মারের অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার – ফিল্ড অপারেশনস, শারমিন আক্তার শম্পা বলেন, “ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাব থেকে কৃষকদের রক্ষা করতে এবং সামনের বন্যা ও অতিবৃষ্টিতে সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে সবসময়ই তাদের পাশে রয়েছে আইফার্মার। শুধু ভোলা নয়, উপকূলীয় অঞ্চল সহ সারাদেশেই কৃষকদের জন্য কাজ করে যাচ্ছি আমরা। কৃষক ও কৃষি উদ্যোক্তাদের জন্য অর্থায়নের সুযোগ তৈরি, তাদের জন্য আধুনিক কৃষি উপকরণ ও যন্ত্রপাতি সরবরাহ, প্রশিক্ষণ, বীমা, পরামর্শ এবং ন্যায্যমূল্যে পণ্য বিক্রয়ে সক্ষম করে তোলা সহ কৃষক, কৃষিপদ্ধতি ও কৃষিখাতকে যুগোপযোগী করতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে আইফার্মার।”

সরকারের ‘স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে স্মার্ট কৃষি’ লক্ষ্যের সাথে একাত্ম হয়ে কাজ করছে আইফার্মার। বিগত পাঁচ বছরে ৩৬টি জেলার ১ লাখ ১৩ হাজারেরও বেশি কৃষককে সেবা প্রদান করেছে প্রতিষ্ঠানটি। কৃষকদের আর্থিক অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করা, তাদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করা এবং উদ্ভাবনী সমাধান নিয়ে আসার মধ্য দিয়ে দেশের কৃষিখাতকে আধুনিক করে তুলতে আইফার্মারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।