ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লড়াই করেও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে হার, যা বললেন বাবর

পাকিস্তানিরা হয়তো স্বপ্নেও ভাবেনি তারা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে হেরে যাবে। কিন্তু বাস্তবে তাই হলো। পরাজয়েই বিশ্বকাপ মিশন শুরু হলো সাবেক চ্যাম্পিয়নদের। 

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের ডালাসের গ্রান্ড প্যারিস স্টেডিয়ামে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ের কারণে ৭ উইকেটে ১৫৯ রানের বেশি করতে পারেনি পাকিস্তান। টার্গেট তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক মোনাঙ্ক প্যাটেলের ফিফটি আর আন্দ্রেস গৌস, অ্যারন জোস্ন এবং নীতিশ কুমারের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান করে ম্যাচ টাই করে যুক্তরাষ্ট্র।

সুপার ওভারে প্রথমে ব্যাট করে ১ উইকেটে ১৮ রান করে যুক্তরাষ্ট্র। পাকিস্তানের তারকা পেসার মোহাম্মদ আমির সুপার ওভারে ৩টি ওয়াইড বল করেন। ২টি ওয়াউড বলে দৌড়ে প্রান্ত বদল করেন দুই ব্যাটার। একটি ওয়াইড বলে বাড়তি ২ রান নেন তারা। সুপার ওভারে অতিরিক্ত ৭ রান খরচ করে পাকিস্তান।

জয়ের জন্য সুপার ওভারে পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ১৯ রান। ইফতিখার আহমেদের উইকেট হারিয়ে ১৩ রানের বেশি করতে পারেনি সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে সুপার ওভারে জিতে ইতিহাস গড়ে যুক্তরাষ্ট্র। 

ম্যাচ হেরে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম বলেন, ‘প্রথম ৬ ওভারে আমরা সেভাবে মানিয়ে নিতে পারিনি। একটার পর একটা উইকেট যাওয়াতে আমরা পিছিয়ে পড়ছিলাম। ব্যাটার হিসেবে জুটি গড়তে আপনাকে এগিয়ে আসতে হবে। আমরা বোলিংয়ে প্রথম ৬ ওভার খারাপ করেছি। আমাদের স্পিনাররাও উইকেট নিতে পারেনি।’

যুক্তরাষ্ট্রের প্রশংসা করতে ভুলেননি বাবর, ‘যুক্তরাষ্ট্রকে কৃতিত্ব দিতেই হয়। তারা তিনটি বিভাগেই আমাদের পরাস্ত করেছে। পিচে শুরুতে কিছুটা সুইং ছিল, তবে পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে এটি আপনাকে মানিয়ে নিতে হবে।’