ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

তেঁতুলিয়ায় ২১ লাখ টাকার মরিচ নিয়ে কাভার্ড ভ্যান উধাও

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ২১ লাখ টাকার শুকনো মরিচ নিয়ে কাভার্ড ভ্যান উধাও হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গত ১৯ অক্টোবর উপজেলার শালবাহান হাট থেকে নোয়াখালীর চৌমুহনীর এক আড়তদারের কাছে মরিচগুলো পাঠানোর এক সপ্তাহেও কাভার্ড ভ্যান ও চালকের কোনো খোঁজ মেলেনি বলে অভিযোগ মজনু নামের এক মরিচ ব্যবসায়ীর।

এ ঘটনায় ২১ অক্টোবর ট্রাক ব্যবস্থাকারী শাহাদত হোসেনসহ চালক রিয়াদের (৩৫) বিরুদ্ধে তেঁতুলিয়া মডেল থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। চালকের মোবাইল বন্ধ। ট্রাক ব্যবস্থাকারী শাহাদত হোসেন বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ ব্যবসায়ীর।

মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) রাতে মজনু জানান, আমি দীর্ঘদিন যাবত শালবাহানে মরিচের ব্যবসা করে আসছি। গত ১৯ তারিখে নোয়াখালীর চৌমুহনীর অরবিন্দ আড়তদারের কাছে মরিচ পাঠানোর জন্য ট্রাক খুঁজছিলাম। তেঁতুলিয়ার সদর এলাকার শাহাদত নামের একজনের মাধ্যমে একটি কাভার্ড ভ্যানের ব্যবস্থা করে দেন দুলাল। ওই দিনই ২১ লাখ টাকার শুকনো মরিচ কাভার্ড ভ্যানে নিয়ে চালক রিয়াদ নোয়াখালীর উদ্দেশে রওনা দেন। তিন থেকে চারদিনের মধ্যে চৌমুহনীতে মরিচ পৌঁছার কথা থাকলেও এখন পর্যন্ত চালক ও কাভার্ডভ্যানটিকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। ড্রাইভারের ফোন নম্বরটিও বন্ধ পাচ্ছি। কাভার্ড ভ্যানের সন্ধান না পেলে ব্যবসার পুঁজি হারিয়ে পথে বসতে হবে।

তবে শাহাদত হোসেন জানান, গত কয়েক দিন আগে কাভার্ড ভ্যানের চালক রিয়াদ আমার বাসায় এসেছিল। তাকে আমি আগে থেকেই চিনি। তিনি আমার কাছে ট্রাকে পণ্য পরিবহনের জন্য ওই পার্টির সঙ্গে কথা বলতে বলেছিল। সে যে মরিচের ট্রিপ দেবে তা বলেনি। আমি তাকে মরিচ বহনের জন্য ট্রাক ব্যবস্থা করে দেইনি।

তেঁতুলিয়া মডেল থানার ওসি আবু সাইদ চৌধুরী জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। ট্রাকটি উদ্ধারে পুলিশের একটি টিম মাঠে কাজ করছে। প্রযুক্তি সহায়তায় তদন্ত চলছে। আমরা সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।