ঢাকা, শনিবার, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

টয়লেটে দেওয়া হচ্ছে খাবার, ব্যবস্থা নেওয়ার আকুতি ধাওয়ানের

বিশাল এক থালাভর্তি ভাত পড়ে আছে টয়লেটের মেঝেতে। সেখান থেকেই খাবার নিয়ে খাচ্ছেন কাবাডি খেলোয়াড়রা। এমন এক ভিডিও সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভারতে সাহারানপুরের একটি স্পোর্টস স্টেডিয়ামের এমন কাণ্ডে রীতিমতো চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে দেশটিতে। সেই ভিডিও এবার নজরে পড়েছে ভারতীয় ক্রিকেটার শিখর ধাওয়ানের। টুইট করে তিনি এ অবস্থা পরিবর্তনের আকুতি জানিয়েছেন সম্প্রতি।

 

সম্প্রতি এই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জুনিয়র খেলোয়াড় অভিযোগ করেছেন, সাহারানপুর জেলায় তিন দিনের রাজ্য স্তরের অনূর্ধ্ব-১৭ মেয়েদের কাবাডি টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে এমন প্রায় ২০০ জন খেলোয়াড়কে সেই টয়লেটের মেঝেতে পড়ে থাকা ভাতই পরিবেশন করা হয়েছে।

সেই জুনিয়র খেলোয়াড় অবশ্য আরও দাবি করেছেন, ‘সুইমিং পুলের কাছে একটি ইটের চুলায় বড় পাত্রে ভাত, ডাল ও সবজি রান্না করা হয়েছিল। পাত্র থেকে রান্না করা ভাত একটি বড় প্লেটে বের করে তার গেটের কাছে টয়লেটের মেঝেতে রাখা হয়েছিল। শুক্রবার দুপুরের খাবারে খেলোয়াড়দের এই ভাত পরিবেশন করা হয়।’

এখানেই শেষ নয়। সেই ভিডিওতে দেখা যায়, ভাতের প্লেটের পাশে সেই টয়লেটের মেঝেতেই এক টুকরো বড় কাগজে বেশ কিছু পুরি পড়ে ছিল। সে দৃশ্যটা ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও প্রকাশ করা হয়। সেটা নিয়ে ভারতে চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতিই সৃষ্টি হয়েছে।

কয়েকজন খেলোয়াড় বিষয়টি স্টেডিয়ামের এক কর্মকর্তাকে জানান। সেই কর্মকর্তা ক্রীড়া কর্মকর্তা অনিমেষ সাক্সেনাকে এ ব্যাপারে জানান, যিনি ‘রাঁধুনিদের তিরস্কার করেছিলেন’ বলে জানাচ্ছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম। অথচ সেই তিনিই কিনা পরে বিষয়টি পুরো ‘ভিত্তিহীন’ বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন!

সেই ভিডিও চোখে পড়েছে ভারতীয় ব্যাটার শিখর ধাওয়ানেরও। এরপর তিনি কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের আকুতি জানিয়েছেন।

টুইটারে তিনি বলেছেন, ‘রাজ্য পর্যায়ের এই কাবাডি টুর্নামেন্টে খেলোয়াড়দের খাবার টয়লেটে রেখে পরিবেশন করা হচ্ছে, দৃশ্যটা আমাকে ভীষণ যন্ত্রণা দিচ্ছে। এ বিষয়ে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্য ক্রীড়া সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’