ঢাকা, শনিবার, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলকে অভিনন্দন জানালেন বিজিএমইএ’র মেম্বার এনামুল হক সবুজ

অভিনন্দন বার্তায় বিজিএমইএ’র মেম্বার এনামুল হক সবুজ বলেন- আমাদের মেয়েরা সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী হয়েছেন। এ শুধু একটি টুর্নামেন্টে বিজয় নয়, নারীর প্রতি অবমাননা, নারীকে হেয় করার প্রবণতা, পুরুষতান্ত্রিক নৃশংসতা—এর সবকিছুরই জবাব বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের এই বিজয়। কত বড় বড় বাধার প্রাচীর দুমড়েমুচড়ে নারী খেলোয়াড়দের এগিয়ে যেতে হয়, সেটা সবাই জানে। ক্রীড়াঙ্গনে পা ফেলতে হলে নারীদের কত দিকের, কত প্রতিবন্ধকতা পার হতে হয়, সে ব্যাপারও কারও অজানা নয়। রক্ষণশীল, পশ্চাৎপদ পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতা ভাবনাজগৎকে গ্রাস করতে থাকলে মুক্তি মেলে না। আমরা এখনো সেই মানসিকতার বিরুদ্ধে জয়ী হতে পারিনি।

 

এ রকম পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের মেয়েরা দেশের জন্য বয়ে এনেছেন বিশাল সম্মান।

সাফ ফুটবলে একের পর এক জয়ের মাধ্যমে দলটি হয়ে ওঠে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু। এরই মধ্যে দলের খেলোয়াড় সানজিদা

আখতারের একটি ফেসবুক পোস্ট ভাইরাল হয়। সে পোস্টে তিনি যা লিখেছেন, তাতে বোঝা যায়, দলটি একটি ভালো ফলাফল দেওয়ার জন্য কতটা আন্তরিক। ফাইনাল খেলার আগপর্যন্ত বাংলাদেশ দলের জালে একটা বলও জড়ায়নি। দারুণ এক মনোবল নিয়ে বাংলাদেশ দল ফাইনাল খেলতে নামে। পুরো টুর্নামেন্টে বাংলার মেয়েরা খেলেছেন দাপটের সঙ্গে। প্রতিদ্বন্দ্বী সব দেশকেই তাঁরা উড়িয়ে দিয়েছেন। কেবল ফাইনাল খেলায় বাংলাদেশ দলের জালে একটি বল ঢুকেছে ঠিকই, কিন্তু ৩-১ গোলের এই জয়ে শিরোপা এসেছে বাংলাদেশে। সাবিনা, সানজিদা, কৃষ্ণা, রুপনা চাকমা, স্বপ্নাসহ জাতীয় দলের ফুটবলাররা বুঝিয়ে দিয়েছেন পরিশ্রম, মেধা এবং সেই সঙ্গে জয়ী হওয়ার অদম্য তৃষ্ণা স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করতে পারে। সমতলের, পাহাড়ের, ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের এই নারীরাই তো আমাদের অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ।

নারীদের খেলাধুলা তথা নারীমুক্তির বিরুদ্ধে যে পশ্চাৎপদ ভাবনা সমাজে বিদ্যমান, সেই ভাবনাকে হটিয়ে দেওয়া না হলে নারীরা খেলাধুলায় শুধু নয়, বাস্তব জীবনের নানা প্রান্তে হোঁচট খেতেই থাকবেন, বেশি দূর এগিয়ে যেতে পারবেন না। তাই আমাদের চিন্তাজগতে নারী বিষয়ে রক্ষণশীল মনোভাব পরিবর্তন করা জরুরি।

এই বিজয় আরও কয়েকটি দিকে আমাদের চোখ খুলে দিল। বাঙালি ছাড়াও দেশের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর মানুষদের মিলন হয়েছে, দারিদ্র্যকে, রক্ষণশীল আক্রমণকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে মেয়েরা ছিনিয়ে এনেছেন বিজয়। অভিনন্দন, বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। নারী ফুটবলারদের এ বিজয় পুরো বাংলাদেশের। জয় হোক অদম্য নারী শক্তির, জয় হোক লাল-সবুজের।