ঢাকা, সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

হ্যাকার কমিউনিটির ই-মেইলের বিষয়ে যা বলল ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়

রেজিস্ট্রার অফিসের অ্যাকাউন্ট থেকে গত শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছে একটি ই-মেইল পাঠানো হয়। এতে ছাত্রলীগসহ অন্য কোনো সংগঠনের রাজনীতিতে না জড়ানোর অনুরোধ করা হয়। এমনকি রাজনীতিতে জড়ালে শিক্ষার্থীর আইডি কার্ড বাতিল হয়ে যেতে পারে বলেও সতর্ক করা হয়।

ই-মেইলটি রেজিস্ট্রার অফিসের অ্যাকাউন্ট থেকে পাঠানো হলেও বিষয় লিখা ছিল, ‘ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি হ্যাকার কমিউনিটি : সিবিএলের বিরুদ্ধে সতর্কবার্তা।’

ই-মেইলে বলা হয়, ‘প্রিয় বন্ধুরা, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ভেতরে ছাত্রলীগ বা কোনো রাজনীতি করবেন না। করলে আপনার আইডি কার্ড বাতিল হয়ে যেতে পারে।’

কিন্তু ‘ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি হ্যাকার কমিউনিটি’ আসলে কারা, সেই বিষয়ে কিছুই জানা যায়নি। শিক্ষার্থীদের ধারণা, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার অফিসের ই-মেইল আইডির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বা হ্যাক করে কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী এটি পাঠিয়েছে।

বিষয়টি সম্পর্কে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে প্রশ্ন রেখেছিল। জানতে চাওয়া হয়েছিল, রেজিস্ট্রারের ই-মেইল হ্যাক করেই মেইল পাঠানো হয়েছিল কিনা। আজ মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ই-মেইল পাঠিয়ে সেই প্রশ্নের জবাব দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এতে বলা হয়েছে, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অজ্ঞাত উৎস থেকে একটি স্প্যাম মেইল পেয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। ‘ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি হ্যাকার কমিউনিটি’থেকে এই মেইল পাঠানো হয়েছে। আমরা বলতে চাই, এটি একটি মিথ্যা (ফলস) মেইল এবং এটি ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার পাঠাননি। রেজিস্ট্রারের ই-মেইল অ্যাকাউন্ট থেকেও কোনো মেইল পাঠানো হয়নি। স্প্যাম ই-মেইলটি এমনভাবে বানানো যা দেখলে মনে হতে পারে এটি রেজিস্ট্রারের ই-মেইল, কিন্তু বাস্তবিক অর্থে তা নয়।