ঢাকা, রবিবার, ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নাশিদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি, আটক ২

মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে বলে তার পরিবার ও স্বজনরা জানিয়েছেন। এ বোম হামলার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুইজনকে আটক করা হয়েছে বলে দেশটির পুলিশ জানিয়েছে।শনিবার (৯ মে) আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, লাইফ সাপোর্ট খুলে নেওয়ার পর নাশিদ বলেছেন, ‘আমি ভালো আছি। ’ তার বোন নাশিদা সাত্তার এক টুইটে বিষয়টি জানিয়েছেন।

নাশিদের জ্ঞান ফিরেছে এবং তার লাইফসাপোর্ট খুলে নেওয়া হয়েছে। তার সুস্থতা দেখে চিকিৎসকেরা খুশি বলে তার ভাই ইব্রাহিম নাশিদ জানিয়েছেন।

এক টুইটে ইব্রাহিম নাশিদ বলেন, নাশিদ এখন লাইফ সাপোর্টের বাইরে। কোনো সহযোগিতা ছাড়াই তিনি শ্বাস-প্রশ্বাস চালিয়ে যাচ্ছেন। হালকা কথা বলতে পাচ্ছেন। তিনি আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তার ওপর আমার আস্থা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) দেশটির রাজধানী মালেতে নাশিদ নিজের ঘর থেকে বেরিয়ে হয়ে গাড়িতে উঠার সময় মোটরসাইকেলে লাগানো কোনো ডিভাইসের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এই হামলার পর তাকে দেশটির এডিকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তার বেশ কয়েকটি অস্ত্রোপচার করা হয়। তার শারীরিক অবস্থার সংকটাপন্ন হওয়ায় তাকে লাইফসাপোর্টে নেওয়া হয়।
নাশিদের ওপর হামলার দায় এখনও কেউ স্বীকার করেনি। দেশটির পুলিশ জানায়, বোমা হামলার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবারের ঘটনাটিকে ‘সন্ত্রাসী’ হামলা হিসেবে দেখছে পুলিশ। দেশটির নেতারা নাশিদের ওপর হামলাকারীদের বিচারের আওতায় আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

ক্ষমতাসীন দল মালদিভিয়ান ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা নাশিদ ২০০৮ সালে মালদ্বীপে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রথম প্রেসিডেন্ট ছিলেন। বিরোধীদলের নেতাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্ত শুরুর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন তিনি। এখন পার্লামেন্টের স্পিকারের দায়িত্বে রয়েছেন নাশিদ।