ঢাকা, সোমবার, ১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুরে নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর বাহা উৎসব উদযাপন

নীলফামারী: দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার বারকোনা গ্রামে নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর বাহা উৎসব উদযাপন হয়েছে।

শুক্রবার (২ এপ্রিল) এ উৎসব উদযাপন করা হয়।এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল।

বাহা উৎসব উদযাপন কমিটির আয়োজনে ও জাতীয় আদিবাসী পরিষদ, গ্রাম বিকাশ কেন্দ্র (জিবিকে), অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এএলআরডি), কিপিং ফাউন্ডেশন, জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) সহযোগিতায় ৫ম বাহা উৎসবের আয়োজন করা হয়। করোনা সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এ উৎসব উদযাপন করা হয়েছে।

বাহা উৎসবে উদ্বোধক ছিলেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার সঞ্জিব কুমার ভাট্টি।

উৎসবে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্র নাথ সরেন, দিনাজপুর সরকারি কলেজের অধ্যাপক ড. মাসুদুল হক, পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম প্রামাণিক, পার্বতীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আমজাদ হোসেন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাহা উৎসবের আহবায়ক বাসন্তী মুর্মু। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মানিক সরেন।

প্রধান অতিথি দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেন, নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর সরলতা ও নিরক্ষরতার সুযোগ নিয়ে একটি শ্রেণী তাদের সর্বস্বান্ত করছে। এছাড়া তাদের সর্বশেষ জমিটুকু থেকেও তাদের উচ্ছেদ করতে চায়। তাই তাদের জমির রক্ষার জন্য সমতল আদিবাসীদের জন্য স্বাতন্ত্রে ভূমি কমিশন প্রয়োজন। যা তাদের প্রাণের দাবি।

তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর ভূমিকা জাতির কাছে অবশ্যই চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে। রাজাকারের খাতায় নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর কারও নাম নেই। বরং প্রত্যেকেই বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে রণাঙ্গনের সাহসী ভূমিকা পালন করেছেন।