ঢাকা, সোমবার, ১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কাতার বিশ্বকাপ: দক্ষিণ এশীয় ৬৫০০ শ্রমিকের মৃত্যু

গত এক দশকে কাতারে দক্ষিণ এশিয়ার সাড়ে ছয় হাজারের বেশি অভিবাসী শ্রমিক মারা গেছেন। এ শ্রমিকরা বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা থেকে সেখানে কাজ করতে গিয়েছিলেন।

২০২২ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজক হওয়ার সুযোগ পাওয়ার পর থেকে এসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দ্য গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

সরকারি তথ্য থেকে জানা যায়, ২০১০ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে এখন পর্যন্ত দক্ষিণ এশিয়ার এ পাঁচটি দেশ থেকে কাতার যাওয়া অভিবাসী শ্রমিকদের মধ্যে প্রতি সপ্তাহে গড়ে ১২ জন মারা গেছেন।

ভারত, বাংলাদেশ, নেপাল ও শ্রীলঙ্কার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০১১ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত কাতারে এ চারটি দেশের মোট ৫ হাজার ৯২৭ অভিবাসী কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। কাতারের পাকিস্তানি দূতাবাস থেকে জানা গেছে, এ সময় কাতারে পাকিস্তানের ৮২৪ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

কাতারে অভিবাসী শ্রমিকদের মৃত্যু এর চেয়ে আরও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বেশি বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ এ পাঁচটি দেশ ছাড়াও ফিলিপাইন, কেনিয়াসহ বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিকরা কাতারে যান।

বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য কাতারজুড়ে নানা অবকাঠামোগত নির্মাণকাজ চলছে। এ ধরনের ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করার সময় দুর্ঘটনায় অধিকাংশ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।